তুমিই প্রথম নারী যাকে আমি ঘৃণা করি

তুমিই প্রথম নারী যাকে আমি ঘৃণা করি
( অং সান সুচি কে)

কোনো নারীকেই আমি কখনো ঘৃণা করিনি
কোনো নারীকেই আমি কখনো ঘৃণা করতে পারিনি। 
হয়তো নারীদের কেউ কেউ কখনো আমাকে ক্ষুব্ধ করেছে 
কখনো বা লজ্জিত করেছে
কখনো বা পুড়িয়েছে
কখনো বা ক্ষত বিক্ষত করেছে রক্তাক্ত করেছে হৃদয়। 
হয়তো বা আমি তাদের ভীষণ বকেছি প্রকাশ্যে কিংবা গোপনে 
নয়তো বিদ্রূপ করেছি, প্রহার করেছি
কিন্তু কোনো নারীকেই আমি ঘৃণা করতে পারিনি কখনো। 

কোনো নারী যদি কুরূপাও হয়
কোনো নারী যদি মুখরাও হয়
কোনো নারী যদি বদরাগীও হয় 
কোনো নারী যদি বেহায়াও হয় 
কোনো নারী যদি নষ্টা বা বেশ্যাও হয় 
তবুও কেন যে আমি তাকে ঘৃণা করতে পারি না জানি না।
শুধু জানি নারীর কাছে আমার জীবনের দায়। 

কোনো কোনো নারীকে দেখলেই আমার মাকে মনে পড়ে
কোনো কোনো নারীকে দেখলেই আমার বোনদের মনে পড়ে 
কেন মনে পড়ে কখনো ভাবিনি।
কোনো কোনো নারীকে দেখলেই 
কখনো কখনো আমার এক ভিনদেশি বালিকার কথা মনে পড়ে 
যার অবুঝ কৈশোর ছুঁয়েছিলো আমাকে।
কোনো কোনো নারীকে দেখলেই 
কখনো কখনো হঠাৎ দেখা এক তরুণীকে মনে পড়ে 
দ্বিতীয়বার দেখিনি যাকে আর 
অথচ তার মায়াবী সেই চোখ মাঝে মাজে খুঁজে ফিরি আজো।
কোনো কোনো নারীকে দেখলেই 
এক উপেক্ষিতা রমণীর কথা মনে পড়ে 
যার শেষ চিঠি বহুদিন প্রিয় গ্রন্থের পাতা ভিজিয়েছে জলে 
তারপর একদিন কিছুই না বলে অন্য কোথাও গিয়েছে চলে।

কোনো নারীকে দেখলেই 
আমার জীবন জুড়ে থাকা
আমার হৃদয় জুড়ে থাকা 
আমার স্মৃতির পাতা জুড়ে থাকা 
এই নারীদের কথা শুধু মনে পড়ে।
তাই আমি কোনো নারীকেই ঘৃণা করতে পারিনি কখনো। 

অথচ হে অং সান সুচি শোনো
তুমিই প্রথম নারী যাকে আমি ঘৃণা করি।
কেন?
সে তো তুমি জানো 
তাই ব্যাখ্যা দেবার প্রয়োজন নেই কোনো। 
শুধু জেনে রাখো 
তুমিই প্রথম ঘৃণা করতে শেখালে নারীকে
তুমিই প্রথম নারী যাকে আমি ঘৃণা করি। 

-সায়ন্তন রফিক 

মন্তব্য