পরিচালককে হত্যার চেষ্টা, তিন বছরের জেল অভিনেত্রীর

৩ বছরের জন্য কারাগারে যেতে হল অভিনেত্রী প্রীতি জৈনকে। বলিউড পরিচালক মধুর ভাণ্ডারকরকে খুনের চেষ্টার অভিযোগে প্রীতিকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল মুম্বই আদালত। শুক্রবার এর রায় ঘোষণা করা হয়। ২০০৪ সালে প্রীতি মধুর ভাণ্ডারকরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনেন। তাঁর অভিযোগ ছিল, সিনেমায় নায়িকা করবেন বলে প্রীতির সঙ্গে ১৯৯৯ সাল থেকে সহবাস করে আসছিলেন মধুর। ২০০৪ সালের মধ্যে নানা বাহানায় মধুর তাঁকে মোট ১৬ বার ধর্ষণ করেছিলেন বলেও পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন প্রীতি। পরে সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত এই নিয়ে বিবাদ গড়ায়। শীর্ষ আদালত মধুরকে বেকসুর খালাস করে দেয়। এরপরই ২০০৫ সালে গ্রেফতার হন প্রীতি। সুপারি কিলার দিয়ে তিনি মধুরকে খুনের ষড়যন্ত্র করেছিলেন বলে পুলিশে অভিযোগ দায়ের হয়।




পরিচালককে হত্যার চেষ্টা, তিন বছরের জেল অভিনেত্রীর
৩ বছরের জন্য কারাগারে যেতে হল অভিনেত্রী প্রীতি জৈনকে। বলিউড পরিচালক মধুর ভাণ্ডারকরকে খুনের চেষ্টার অভিযোগে প্রীতিকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল মুম্বই আদালত। শুক্রবার এর রায় ঘোষণা করা হয়। ২০০৪ সালে প্রীতি মধুর ভাণ্ডারকরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনেন। তাঁর অভিযোগ ছিল, সিনেমায় নায়িকা করবেন বলে প্রীতির সঙ্গে ১৯৯৯ সাল থেকে সহবাস করে আসছিলেন মধুর। ২০০৪ সালের মধ্যে নানা বাহানায় মধুর তাঁকে মোট ১৬ বার ধর্ষণ করেছিলেন বলেও পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন প্রীতি। পরে সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত এই নিয়ে বিবাদ গড়ায়। শীর্ষ আদালত মধুরকে বেকসুর খালাস করে দেয়। এরপরই ২০০৫ সালে গ্রেফতার হন প্রীতি। সুপারি কিলার দিয়ে তিনি মধুরকে খুনের ষড়যন্ত্র করেছিলেন বলে পুলিশে অভিযোগ দায়ের হয়।




মন্তব্যসমূহ