দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পার্ক জিউন হাই এর অভিসংশন আদেশ বহাল রেখেছে আদালত।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পার্ক জিউন হাই এর অভিসংশন আদেশ বহাল রেখেছে আদালত। এতে দেশটির ইতিহাসে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম কোন ক্ষমতা হারানো প্রেসিডেন্ট হলেন মিসেস জিউন। তিনিই দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট যাকে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে দায়িত্ব ছাড়তে বাধ্য করা হলো। পার্কের বিরুদ্ধে সবচেয়ে গুরুতর অভিযোগ, তিনি তার বন্ধুকে অবৈধভাবে ক্ষমতার নেপথ্যে থেকে দুর্নীতি করার সুযোগ করে দেন। 



চোই সুন সিল নামে এক বন্ধুর সঙ্গে দুর্নীতি কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার দায়ে গত ডিসেম্বরে সংসদের নেয়া এই সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন বিচারকরা। কোর্টের এই আদেশের ফলে পার্ক জিউন হাই রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা হারালেন। এছাড়া তাকে বিচারের মুখোমুখিও করা হতে পারে।বিবিসি সূত্রে জানা যায়, পার্ক জিউন হাই এর ক্ষমতা হারানো মানে আগামী মে মাসের মধ্যে দেশের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করতে হবে। ডিসেম্বর থেকেই তাকে রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। তখন থেকে দেশটির প্রধানমন্ত্রী প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। গত ডিসেম্বর থেকে পার্ককে প্রেসিডেন্ট হিসেবে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে রাখা হয়েছিল। আর এ সময় প্রেসিডেন্টরে দায়িত্ব পালন করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী। শুক্রবার (১০ মার্চ) পার্ক জিউন হাইকে অভিশংসিত করা নিয়ে পার্লামেন্টের নেওয়া সিদ্ধান্তটি বহাল রাখে আদালত। দেশটির সাংবিধানিক আদালতের আট বিচারপতির প্যানেল সর্বসম্মতিক্রমে পার্ক জিউনকে অভিশংসিত করার ব্যাপারে পার্লামেন্টের সিদ্ধান্তটি বহাল রাখে। বিবিসি।

মন্তব্যসমূহ