হাতাহাতি করে দুই সাংসদ বহিষ্কার

পার্লামেন্টে হাতাহাতি করায় দুই সাংসদকে এক সপ্তাহের জন্য সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীলঙ্কায়।গণমাধ্যমের খবরে জানানো হয়, গতকাল বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্ট দুই সাংসদকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছে। দুই সাংসদের বিরুদ্ধে অভিযোগ—চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে তাঁরা পার্লামেন্টে হাতাহাতি করেছেন। ওই ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।সাময়িকভাবে বহিষ্কার হওয়া দুই সাংসদ হলেন শ্রীলঙ্কার ক্ষমতাসীন জোটের পালিথা থেওরাপ্পেরুমা ও বিরোধী দলের প্রসন্ন রানাওয়িরা।দুই সাংসদকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করতে দেশটির পার্লামেন্ট একটি প্রস্তাবও পাস করেছে।

মন্তব্যসমূহ

Unknown বলেছেন…
good job of law makers
Unknown বলেছেন…
as we do in this country
Unknown বলেছেন…
ইসরাইলকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আসার চেষ্টায় বিএনপি: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থাকে ব্যবহার করে বিএনপি বাংলাদেশের ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ এনেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। তিনি বলেছেন, সরকারের কাছে এমন ‘অনেক তথ্য আছে’, যেগুলো যোগ করলে বিএনপিকে ‘নিষিদ্ধ’ করা যায়।


মঙ্গলবার সুইডেনের আইন ও অভিবাসন মন্ত্রী মর্গান জোহানসনের সঙ্গে এক বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার। তিনি বলেন, আমাদের কাছে এমনও খবর আছে, তারা ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থাকে ব্যবহার করে, বাংলাদেশকে একটি ধর্মান্ধ মুসলিম দেশ হিসেবে উপস্থাপন করে তারা তাদেরকে আশ্বস্ত করার চেষ্টা করেছে বিএনপি ক্ষমতায় গেলে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি হবে। এটা যে কত বড় অপরাধ!

ইসরাইল-বাংলাদেশ সম্পর্ক বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সবসময় স্বাধীন সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র দেখতে চায়। সেই অবস্থান থেকে ইসরাইলের সঙ্গে কোনো ধরনের সম্পর্কে যাওয়ার চিন্তা সরকারের নেই।

বাংলাদেশ পরিস্থিতি নিয়ে কমনওয়েলথের একটি বৈঠকে খালেদা জিয়ার পক্ষে ‘অবস্থান নিয়ে’ পাকিস্তান আলোচনার প্রস্তাব তুলেছিল বলে যে খবর গণমাধ্যমে এসেছে, সে বিষয়েও প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাংবাদিকরা। শাহরিয়ার বলেন, সে বৈঠকে আমরা উপস্থিত ছিলাম না। অন্যান্য যারা উপস্থিত ছিলেন তাদের কাছ থেকে সত্যতা পেয়েছি। এতে প্রতীয়মান হয়, বাংলাদেশের মানুষের সমর্থন না পেয়ে তারা বিদেশিদের উপর নির্ভর করা শুরু করেছে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া, যিনি একাধিকবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন, পাকিস্তান তার হয়ে আন্তর্জাতিক দরবারে ওকালতি করছে। এটা তাৎপর্যপূর্ণ। জামায়াতের মুখোশ আগেই উন্মোচিত হয়েছে, যত দিন যাচ্ছে বিএনপির মুখোশও উন্মোচিত হচ্ছে।

বাংলাদেশকে ‘বিব্রত করার জন্য’ বিএনপি অব্যাহতভাবে ‘চক্রান্ত করে যাচ্ছে’ বলেও অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগ সরকারের এই প্রতিমন্ত্রী। আমার মনে হয়, এখন সময় এসেছে সাক্ষ্য প্রমাণ এক জায়গায় করে... বিএনপির বাংলাদেশের রাজনীতি করার অধিকার আদৌ আছে কিনা... কারণ তারা অব্যাহতভাবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করে যাচ্ছে। আমার মনে হয় সময় এসেছে, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বাংলাদেশের উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিদের সেই উদ্যোগ নেওয়ার সময় এসেছে।