রংপুরে পুলিশের ধাওয়ায় যুবক নিহত, ফাঁড়িতে ভাঙচুর


মো: আশরাফুল আলাম  : রংপুরে হারাগাছ পৌরসভা এলাকায় পুলিশের ধাওয়ায় এক যুবক নিহত হয়েছেন। তাঁর নাম আজিজুল হক। গতকাল শনিবার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনার প্রতিবাদে এলাকাবাসী পুলিশ ফাঁড়িতে ভাঙচুর চালায় এবং সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে। এ নিয়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে পুলিশের কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়। কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল ইসলাম দাবি করেছেন, পুলিশের ধাওয়া খেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত (হার্ট অ্যাটাক) হয়ে আজিজুল মারা গেছেন।পুলিশ ও এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাতে হারাগাছ পৌর এলাকার গনি মার্কেটের একটি ক্লাবে বসে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) একটি ক্রিকেট ম্যাচ দেখছিলেন কয়েকজন যুবক। এ সময় হারাগাছ ফাঁড়ির একদল পুলিশ তাঁদের ওপর লাঠিচার্জ শুরু করে। অন্যরা পালিয়ে গেলেও আজিজুল পালাতে গিয়ে মাটিতে পড়ে যান। এ সময় স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আজিজুলকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে, আজিজুলের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে এলাকাবাসী। তারা একত্র হয়ে হারাগাছ পৌর মার্কেটসংলগ্ন পুলিশ ফাঁড়িতে গিয়ে ভাঙচুর চালায় এবং মহাসড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে এলাকাবাসীর সঙ্গে পুলিশের কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়। এ সময় পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ও রাবার বুলেট ছোড়ে এবং লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে যুবকের লাশ রাখা হয়েছে।

মন্তব্যসমূহ

Mozidul Haque Mukit বলেছেন…
একটি ক্লাবে বসে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) একটি ক্রিকেট ম্যাচ দেখছিলেন কয়েকজন যুবক। এ সময় হারাগাছ ফাঁড়ির একদল পুলিশ তাঁদের ওপর লাঠিচার্জ শুরু করে। অন্যরা পালিয়ে গেলেও আজিজুল পালাতে গিয়ে মাটিতে পড়ে যান। এ সময় স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আজিজুলকে মৃত ঘোষণা করেন।