ভাতিজীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কের কারণে (ধর্ষিত হয়ে) খুন হলেন ইমরান এইচ সরকারের চাচাতো ভাই

গণজাগরণ মঞ্চের একাংশের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারের চাচাত ভাইয়ের ঝুলন্ত লাশ পাওয়া গেছে গত ৩ এপ্রিল। আজকে ১০ তারিখ। এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলো কিন্তু তার আপন চাচাতো ভাইয়ের জন্যে আন্দোলন তো দূরে থাক, একটি ফেসবুক পোস্টও দেয়নি মি. ইমরান। কেন দেয়নি? তার চাচাতো ভাইয়ের জন্যে কথা বললে তো কেউ তাকে পেমেন্ট দিবে না সে জন্যে? মামাতো ভাইয়ের মেয়ের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক সম্পর্ক ছিল গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকারের চাচাতো ভাই দাদাউর রহমানের (২৬)। আর সে কারণেই তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মামাতো ভাই আনোয়ারের স্কুল পড়ুয়া মেয়ের সঙ্গে দাদাউরের সম্পর্ক ছিল। বিষয়টি নিয়ে দুই পরিবার মেনে নেয়নি। এ নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল। নিহতের বাবা আব্দুস সামাদ জানান, মামাতো ভাইয়ের মেয়েকে ইয়ে করতে চেয়েছিল দাদাউর। কিন্তু পরিবার থেকে সেটা মেনে নেয়া হয়নি। প্রশ্ন জাগে মনে, যে লোক তার নিজের চাচাতো ভাইয়ের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ব্যাপারে থানায় একটি মামলাও দায়ের করার প্রয়োজন বোধ করেনি, সেই লোক তনুর জন্যে এত মরিয়া হয়ে উঠে কেন? কারণ তনু ইস্যু নিয়ে মাঠ গরম করতে পারলে লন্ডন থেকে টাকা আসবে। সেনাবাহিনী তথা সরকারের বিরুদ্ধে জনগণকে ক্ষেপিয়ে তুলতে পারলে লন্ডন থেকে টাকা আসবে। লন্ডন থেকে যে টাকা আসে তা ইতোমধ্যেই জনকণ্ঠের স্বদেশ রায় তার একটি কলামে উল্লেখ করেছেন। আবারো লক্ষ্য করুন-জনাব ইমরান তার আপন চাচাতো ভাইয়ের ব্যাপারে নিশ্চুপ। জনাব ইমরান কৃষ্ণকলির বাসায় সংগঠিত হত্যাকান্ডের ব্যাপারে নিশ্চুপ। কারণ, এসব নিয়ে কথা বলে টাকা পয়সা পাওয়া যাবে না, তনুকে ধর্ষিত প্রমান করতে পারলেই টাকা...।  এসব ধান্দাবাজকে বর্জন করার সময় এসেছে।-Advocate Sahana Hossan Trisha- 10.04.2016 সংবাদের সুত্র- http://goo.gl/9ASy2c http://www.bdmorning.com/?p=92751

মন্তব্য

Unknown বলেছেন…
কিন্তু তার আপন চাচাতো ভাইয়ের জন্যে আন্দোলন তো দূরে থাক, একটি ফেসবুক পোস্টও দেয়নি মি. ইমরান।
Unknown বলেছেন…
এসব ধান্দাবাজকে বর্জন করার সময় এসেছে। আন্দোলনের নামে লাশ নিয়ে নোংরা রাজনীতি যারা করে তাদের বর্জন করুন।